ইউটিউব চ্যানেল থেকে আয় করার উপায় কি?

এককথায় উত্তর দিতে গেলে বলতে হবে, অসংখ্য মানুষ পছন্দ করবে এমন ভিডিও তৈরি করা। চ্যানেল মনিটাইজ করে আয় করার পদ্ধতি নিয়ে কিছু বলতে পারি, তাছাড়া অন্যভাবেও আয় করা সম্ভব। আমরা সবগুলো নিয়েই বলার চেষ্টা করবো, এর বাইরেও আরো পদ্ধতি থাকতে পারে।
২০১৯ সালের ইউটিউব মনিটাইজেশন পলিসি
এখন বিগত ১২ মাসে কমপক্ষে ৪০০০ ঘন্টা ওয়াচ টাইম, অর্থাৎ আপনার ভিডিওর দর্শকেরা যদি মোট ৪০০০ ঘন্টা কমপক্ষে দেখে এবং আপনার চ্যানেলে ১০০০+ সাবস্ক্রাইবার থাকে তাহলেই শুধু আপনি, চ্যানেল মনিটাইজেশনের জন্য আবেদন করতে পারবেন। এরপর আপনার ভিডিওগুলো পর্যালোচনা করে copyright বা, কমিউনিটি গাইডলাইন ভাঙ্গার কোন রেকর্ড খুজে না পেলে ভিডিওতে এড দেখানোর সুযোগ পাবেন। এডের cpm, cpc এগুলোর উপর ভিত্তি করে আয়ের পার্থক্য ঘটে, ভিউ এর উপর ভিত্তি করে না(বিশদ আলোচনা না হয় পরে করা যাবে)।
এড দেখানো ছাড়াও আয়ের যেসব পদ্ধতি আছে
  1. শুধুই জনপ্রিয়তা বাড়িয়ে সেই জনপ্রিয়তা অন্য ক্ষেত্রে কাজে লাগানো। যেমন: আপনার অভিনয়দক্ষতা দেখিয়ে নাটক, সিনেমায় কাজের অফার পেতে পারেন। মোটিভেশনাল স্পিচ দেয়ার জন্য ডাক পেতে পারেন, যদি মানুষকে অণুপ্রেরণা দেয়ার কাজটা ভালো পারেন। উদাহরণ: সোলায়মান সুখন, শামিম হোসেন সরকার।
  2. এফিলিয়েট মার্কেটিং করতে পারেন। বিভিন্ন প্রডাক্ট রিভিউ এর যেসব চ্যানেল আছে, ওরা কিন্তু অন্যদের প্রডাক্ট বিক্রি করে মোটা অঙ্কের কমিশন পায়।
  3. নিজের অফলাইনের কোন দোকান বা, অনলাইন স্টোরের পণ্য ইউটিউবের মাধ্যমে নিজেই নিজের বিজ্ঞাপন দিয়ে বিক্রি করতে পারেন। নতুন বইয়ের লেখকেরা ফেসবুকে এই কাজ করে।
  4. ওয়েবসাইটের ভিজিটর বাড়িয়ে নিতে পারেন। অনলাইন দোকানের ক্ষেত্রে যেটা করা যাবে, সেভাবেই এই কাজটা করা যায়।
  5. রাজনৈতিক আদর্শ বা, অন্য কোন ধরণের আদর্শ প্রচারের জন্য ইউটিউবকে ব্যবহার করে এরকম মানুষ অসংখ্য।
আরো পড়ুন-
আয়ের লোভে মিথ্যাপ্রচার এবং অন্যের ক্রিয়েটিভ কোন কাজ চুরি করে নিজের নামে চালানোর চেষ্টা করবেন না। এখন বেচে গেলেও দুইদিন পরে ধরা খাবেন।

One thought on “ইউটিউব চ্যানেল থেকে আয় করার উপায় কি?

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *